শিরোনাম
২৮০ বছর বন্ধ থাকুক ডাকসু

ছাত্রলীগের নির্বাচিতদের শপথ নিতে নিষেধ করলেন নাজমুল

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৫:২৮, মার্চ ১২, ২০১৯

 

২৮ বছরের দীর্ঘ অপেক্ষার পর নানা আলোচনা ও সমালোচনার মধ্য দিয়েই গতকাল সোমবার অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নির্বাচন।

ডাকসু’র বহুল প্রতিক্ষিত এ নির্বাচনে সহ-সভাপতি (ভিপি) পদে নুরুল হক ও সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে গোলাম রাব্বানী নির্বাচিত হলেও ছাত্রলীগ মনোনীত ভিপি প্রার্থী বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি রেজয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের পরাজয় ও ভিপি নুরুর জয়কে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে নির্বাচিত অন্যসব প্রার্থীদের শপথ না নেওয়ার আহ্বান করেছেন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম।

গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও ডাকসুর সভাপতি মো. আখতারুজ্জামান নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পরপরই সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে আলোচনার ঝড় উঠেছে সাবেক ছাত্রলীগ নেতার এমন বক্তব্যে।

সিদ্দিকী নাজমুল আলম তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে উল্লেখ করেন, হতে পারে শোভনকে তুমি কম পছন্দ করো কি‘ শোভন কি‘ ছাত্রলীগের চেয়ার এবং তোমাদের মিছিলের সাথী। ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে ডাকসুতে নির্বাচিতদের বলবো জামাত-শিবিরকে সাথে নিয়ে ছাত্রসংসদের শপথ নিয়ো না। প্রয়োজন হলে ২৮ বছর না আরও ২৮০ বছর ডাকসু বন্ধ থাকুক । প্রাণের ক্যাম্পাসের নেতৃত্ব ঐ সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর হাতে থাকবে এটা হতে পারে না। বঙ্গবন্ধুর রক্ত এবং আদর্শের সাথে বেঈমানী করো না ।

এদিকে ঘোষিত ফলাফল অনুসারে সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) পদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনসহ ডাকসুর ২৫টি পদের মধ্যে ২৩টিতেই ছাত্রলীগের প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন। সমাজসেবা সম্পাদক পদে নির্বাচিত হন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্রার্থী আখতার হোসেন।

ভিপি পদে বিজয়ী নুরুল হক কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদেও নেতা হিসেবে পরিচিত। তিনি সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ থেকে নির্বাচন করেন। অন্যদিকে জিএস পদে নির্বাচিত গোলাম রাব্বানী বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক।

ঘোষিত ফলাফল অনুসারে ২৫ হাজারের কিছু বেশি ভোট প্রয়োগ হয়েছে। যা মোট ভোটারের ৫৯ শতাংশ। ভিপি পদে নুরুল হক পান ১১ হাজার ৬২ ভোট। এই নির্বাচনে মোট ভোটারের সংখ্যা ছিল ৪৩ হাজার ২৫৫ জন।
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত