শিরোনাম

হিলিতে সপ্তাহান্তে পেঁয়াজের কেজি ৮ টাকায় নামলো

প্রিন্ট সংস্করণ॥অর্থনৈতিক প্রতিবেদক  |  ০২:৩২, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে টানা ছুটির ফাঁদে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম ব্যাহত হওয়ায় ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার মধ্য দিয়ে বছর শুরু করেছিল দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজের পাইকারি বাজার। পরবর্তীতে আমদানি স্বাভাবিক হয়ে আসায় পণ্যটির দাম কমেছিল। জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে এসে পেঁয়াজের দাম আরো কমে গেছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে স্থানীয় পাইকারি বাজারে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম ৫ টাকা কমে কেজিপ্রতি ৮ টাকায় নেমে এসেছে। চলতি বছরের শুরু থেকে দ্বিতীয় দফার দাম কমার পেছনে বাড়তি পেঁয়াজ আমদানিকে চিহ্নিত করেছেন স্থানীয় ব্যবসায়ী ও আমদানিকারকরা। গতকাল হিলির পাইকারি আড়তগুলো ঘুরে ভারতের নাসিক, ইন্দোর, হুগলি ও গুজরাট থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ সবচেয়ে বেশি বিক্রি হতে দেখা যায়। এদিন পাইকারি পর্যায়ে (ট্রাকসেল) ইন্দোর থেকে আমদানি করা প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয় ৮-৯ টাকায়। নাসিক থেকে আমদানি করা প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৯-১০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা যায়। অন্যদিকে গুজরাট থেকে আমদানি করা আকারগতভাবে তুলনামূলক বড় পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ১৩ টাকায় বিক্রি হয়। এক সপ্তাহ আগেও আমদানি করা এসব পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ১৩-১৫ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। বর্তমানে পণ্যটির কেজি ৮-১৩ টাকায় নেমে এসেছে। সে হিসাবে, এক সপ্তাহের ব্যবধানে হিলির পাইকারি বাজারে আমদানি করা প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম কমেছে সর্বোচ্চ ৫ টাকা। পাইকারি পর্যায়ে পেঁয়াজের দরপতনের প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারেও।
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত