শিরোনাম

পিপিপিতে চালু হচ্ছে সাতক্ষীরার সুন্দরবন টেক্সটাইল মিলস

প্রিন্ট সংস্করণ॥অর্থনৈতিক প্রতিবেদক  |  ০৭:১৭, জুন ০৯, ২০১৯

অবশেষে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপে (পিপিপি) চালু হচ্ছে সাতক্ষীরার সুন্দরবন টেক্সটাইল মিলস। এর আগে কয়েক দফা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে মিলটি পুনরায় উৎপাদনে ফিরে যাচ্ছে বলে বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস করপোরেশন (বিটিএমসি) সূত্রে জানা গেছে। এজন্য শিগগিরই আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করা হবে বলে জানা গেছে।

এরই মধ্যে মিলের সমুদয় যন্ত্রপাতি, অবকাঠামো এবং অন্যান্য সম্পদের হালনাগাদ বিবরণ দিতে মিলের ব্যবস্থাপকের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি করা হয়েছে। বিটিএমসি বরাবর ওই প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সাতক্ষীরা সুন্দরবন টেক্সটাইলস মিলের চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত মহাব্যবস্থাপক মো. আশরাফুজ্জামান বলেন, মিলটি পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপে চালু করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এরই মধ্যে বিটিএমসির পক্ষ থেকে একটি পত্র পাওয়া গেছে। যাতে মিলের সমুদয় যন্ত্রপাতি, অবকাঠামো এবং অন্যান্য সম্পদের হালনাগাদ বিবরণ দিতে বলা হয়েছে।
এ বস্ত্রকলটি চালু হলে সাতক্ষীরা জেলার তিন-চার হাজার নারী-পুরুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

সুন্দরবন টেক্সটাইলস মিলের মহাব্যবস্থাপকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮৩ সালে সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসকের পাশে তালতলা এলাকায় ৩০ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত হয় সুন্দরবন টেক্সটাইলস মিল। এক থেকে দুই বছরের মধ্যে মিলটি লাভের মুখ দেখে। এরপর নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে সে অবস্থা ধরে রাখা যায়নি।

লোকসানের চক্রে পড়ে যায় এ সম্ভাবনাময় মিলটি। এমনকি লোকসান থেকে বাঁচতে কয়েক দফায় মিলটি বন্ধ করে দেয়া হয়। একপর্যায়ে ১৯৯৭ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত মিলটি বিভিন্ন মেয়াদে ১৩টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছে সার্ভিস চার্জের মাধ্যমে ছেড়ে দেয়া হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত