শিরোনাম

জয়পুরহাটে মাদক মামলার আসামি ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ

জয়পুরহাট প্রতিনিধি  |  ২০:১৯, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৮

জয়পুরহাট গোয়েন্দা পুলিশের বিরুদ্ধে মাদক মামলায় এক এজাহার নামীয় আসামিকে গ্রেপ্তারের পর রহস্যজনক কারণে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার রাতে মামলার ২ নং আসামি জয়পুরহাট সদর উপজেলার দর্গাচড়া সখিনার মোড় গ্রামের আলফত আলীর ছেলে রঞ্জু হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হলেও রাতেই তরিঘড়ি করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, গত ৪ ডিসেম্বর রাতে জয়পুরহাট গোয়েন্দা পুলিশের উপ পরিদর্শক (এস আই) আব্দুল খালেক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সদর উপজেলার ভিটির মোড় এলাকা থেকে ১১ বোতল ফেন্সিডিলসহ এক মাদক কারবারিকে আটক করেন। আটককৃত মাদক কারবারি জুয়েল হোসেন উপজেলার খাস পাহনন্দা গ্রামের মিশন এলাকার আফতাব হোসেনের ছেলে। গোয়েন্দা পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জুয়েল জানায়, উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যগুলোর মালিক এই মামলার ২ নং আসামি রঞ্জু হোসেন। এ ব্যাপারে ওই রাতেই এসআই আব্দুল খালেক বাদী হয়ে সদর থানায় জুয়েল ও রঞ্জুর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার পর গোয়েন্দা পুলিশ গত বুধবার রাতে রঞ্জুকেও গ্রেপ্তার করে। এরপর কি কারণে মাদক মামলার আসামিকে গ্রেপ্তারের পর আদালতে না পাঠিয়ে ছেড়ে দেওয়া হল এ নিয়ে ব্যাপক গুঞ্জন শুরু হয়। বিষয়টি নিয়ে জয়পুরহাট গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক ফরিদ হোসেন জানান, মাদকসহ আটক জুয়েলের সাথে রঞ্জুর পূর্ব শত্রুতা ছিল বলে তিনি প্রতিশোধ নিতেই উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এ মামলায় রঞ্জুকে জড়িয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে বিষয়টি খতিয়ে দেখে মাদকের সাথে রঞ্জুর সম্পৃক্ততা না পাওয়ায় কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে তাকে এক জন দায়িত্বশীল ব্যক্তির জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তবে ছেড়ে দেওয়া হলেও চূড়ান্ত তদন্তে প্রমাণিত হলে যে কোন সময় তাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারে বলেও জানান গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক ফরিদ হোসেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত