শিরোনাম

ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার অভিযোগ

প্রিন্ট সংস্করণ॥গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি  |  ০১:১৬, অক্টোবর ১৬, ২০১৮

২০১৬ সালে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দেন সদস্য পদে জয়ী হলে এলাকায় মাদক নির্মূল করবেন। কিন্তু নির্বাচিত হওয়ার পর সেই কথা রাখেননি। উল্টো নিজে মাদক ব্যবসা করছেন এবং এলাকা মাদক ব্যবসায়ীদের মদদ দিচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। মুকসুদপুর উপজেলার জলিরপাড় ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সুভাষ বৈদ্যর বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে গোপালগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। স্থানীয়দের অভিযোগ ইউপি সদস্য সুভাষ বৈদ্য নিজে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। এ ছাড়া ওই এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী কুমোদ বৈদ্যকে তিনি মাদক ব্যবসায় মদদ দিচ্ছেন। কুমোদ বৈদ্য বর্তমান মাদক মামলায় জেলহাজতে রয়েছেন। কিন্তু তার স্ত্রী চন্দ্রা বৈদ্য এখনো রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। তাকেও এ ব্যবসায় মদদ দিচ্ছেন ইউপি সদস্য সুভাষ বৈদ্য ও তার বংশীও ভাই বিবেক বৈদ্য। এসব মাদক ব্যবসায়ীদের দাপটে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী। ফলে জলিরপাড় ইউনিয়নসহ আশপাশের এলাকার স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীরা বিপদগামী হচ্ছে। ভয়ে কেউ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছে না। ইউপি সদস্য সুভাষ বৈদ্য বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সম্পন্ন মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। স্থানীয় রাজনৈতিক কারণে একটি মহল আমার ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করার জন্য এ ষড়যন্ত্র করছে।’ মুকসুদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোস্তফা কামাল পাশা বলেন, ‘মাদক নির্মূলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ ইউপি চেয়ারম্যানদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তবে কেউ যদি মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে’।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত