শিরোনাম

সরিষাবাড়ীতে চুরির অপবাদে বাড়িঘর ভাঙচুর

প্রিন্ট সংস্করণ॥ সরিষাবাড়ী প্রতিনিধি  |  ০৩:৩১, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৭

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ছেলের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ এনে দিনমজুর বাবার বাড়িঘর ভেঙে উচ্ছেদ করে দিয়েছে ইউপি সদস্যের লোকজন। এ সময় ইউপি সদস্যের নির্দেশে স্বামী-স্ত্রীকে হাত-পা বেঁধে শারিরীক নির্যাতন চালানো হয়। গত মঙ্গলবার উপজেলার ভাটারা ইউনিয়নের ভেবলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এতে তীব্র শীতে খোলা আকাশের নীচে মানবেতর জীবনযাপন করছে পরিবারটি। এদিকে ওই পরিবারের এক শিশুর বইপত্র পুকুরে ফেলে দেওয়ায় দু’দিনের বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি সে। এ ঘটনায় এলাকায় তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, ভেবলা গ্রামের ফকিরা শেখের ছেলে মোবারক হোসেন হান্দুর ঘরে গত সোমবার দিবাগত রাতে চুরি হয়। চুরির ঘটনায় এলাকাবাসী একই গ্রামের পার্শ্ববর্তী বাড়ির দিনমজুর জালাল উদ্দিনের ছেলে মানিক মিয়ার ওপর সন্দেহ করে। পরে বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য বাদল মিয়াকে জানালে তিনি জালাল উদ্দিনের বাড়িঘর ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেন। পরে ইউপি সদস্যের লোকজন গত মঙ্গলবার দুপুরে জালালউদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে দু’টি ঘরসহ আসবাবপত্র ভেঙে তাদের উচ্ছেদ করে দেন।
জালাল উদ্দিনের স্ত্রী রূমনী বেগম অভিযোগ করেন, ‘ইউপি সদস্য বাদলের ভাই বাবলু মিয়া, ইলাহীর ছেলে আঃ সাত্তার ও আব্দুলের ছেলে আলী হোসেনের নেতৃত্বে তাদের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে সব মালামাল ভাঙচুর ও লুট করা হয়। তারা রান্নার চাল-ডাল পর্যন্ত অবশিষ্ট রাখেনি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত