শিরোনাম

‘গরম ইস্ত্রি-রডের ছ্যাঁকা দিয়ে পানি ঢালত ওরা’

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১১:১৩, জুলাই ১১, ২০১৯

রাজধানীর কচুক্ষেতে ১৫ বছর বয়সী এক গৃহপরিচারিকাকে পাশবিক নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতিতাকে গুরুতর অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল ভর্তি করা হয়েছে।

তার শরীরে ইস্ত্রি ও গরম রডের ছ্যাকার চিহ্ন রয়েছে। অমানুষিক নির্যাতনে লিমার দুটি দাঁতও ভেঙে গেছে। তার শরীরে গভীর ক্ষত রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

প্রায় চার মাস আগে রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট কচুক্ষেত এলাকায় মীর ওরফে মাহী বেগমের বাসায় গৃহপরিচারিকার কাজ নেয় ময়মনসিংহের লিমা আকতার।

স্বজনদের দাবি, কাজ শুরুর কয়েকদিন পরে বিভিন্ন অজুহাতে তাকে মারধর করতো মাহী বেগম ও তার ছেলে ওয়াদা।

সম্প্রতি তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ইস্ত্রি ও রড গরম করে ছ্যাকা দেয়া হয়। গৃহকর্তী ও তার ছেলের সঙ্গে লিমার ওপর নির্যাতনে যোগ দেয় আরেক গৃহপরিচারিকা পিংকিও।

গেল মঙ্গলবার (০৯ জুলাই) সন্ধ্যায় লিমাকে গুরুতর অবস্থায় হালুয়াঘাটের একটি বাসে উঠিয়ে দেন মীম বেগম। পরে বুধবার সকালে তাকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

নির্যাতিত লিমা বলেন, রোজার মাসও ওদের নির্যাতন থেকে বাঁচতে পারেনি। পুরাটাই মাসই আমাকে মেরেছে। গরম ইস্ত্রি ও রডের ছ্যাঁকা দিয়ে পানি ঢালত ওরা।

এমএআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত