শিরোনাম

নিখোঁজের ১৯ ঘন্টা পর মিলল নিরবের মরদেহ

মো. সানোয়ার হোসেন, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)  |  ১৩:৪০, জুন ১৮, ২০১৯

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ছোট বোন সুমাইয়াকে (০৮) বাঁচাতে গিয়ে বড় ভাই নিরব (২৬) নিখোঁজ হওয়ার ১৯ ঘন্টা পর তার মরদেহ উদ্ধার করেছে ডুবুরি দলের সদস্যরা। নিরব উপজেলার জামুর্কী ইউনিয়নের গুনটিয়া গ্রামের মো. ফজলুল হকের ছেলে।

গতকাল সোমবার (১৭জুন) দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার গুনটিয়া গ্রামে লৌহজং নদীতে গোসলের সময় নিখোঁজ হয় নিরব। ঘটনার পর থেকে দীর্ঘ ১৯ ঘন্টা পর ৯ ঘন্টা উদ্ধার কাজ চালিয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৬ ডুবুরির সাহায্যে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিরবের মামা মোঃ আলাউদ্দিন জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে নিরব, তার স্ত্রী ও ছোট বোন নদীতে গোসল করতে যায়। এদের মধ্যে কেউই সাঁতার জানে না। গোসলের এক পর্যায়ে নদীর স্রোতে যখন ছোট বোন ডুবে যাওয়া অবস্থায় তখন জীবনের কথা চিন্তা না করেই বোনকে বাঁচাতে নদীতে ঝাপ দেয় বড় ভাই নিরব।

পরে নিরব ও তার স্ত্রীর সহায়তায় বোনকে উদ্ধার করা হলেও সাঁতার না জানায় নদীর তলদেশে ডুবে যায় নিরব। পরে মির্জাপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরি দলের সদস্যরা খবর পেয়ে দুপুর থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত উদ্ধার কার্যক্রম চালিয়েও নিরবকে উদ্ধার করতে পারেনি।

আজ মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে উদ্ধার কাজ চালিয়ে ১১টার সময় নিরবের মরদেহ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে মির্জাপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের লিডার আশিদুর রহমান জানান, গতকাল সোমবার ঘটনার পর থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত উদ্ধার কার্যক্রম চালিয়েছি এবং আজ মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে কাজ চালিয়ে বেলা পৌনে ১১টার সময় নিরবের লাশ ঘটনাস্থল থেকেই উদ্ধার করা হয়। নিরবের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া চলছে।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত