শিরোনাম

মিরসরাইয়ে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, থানায় মামলা

সুজন চন্দ্র মন্ডল, মিরসরাই  |  ১৯:২১, জুন ১২, ২০১৯

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলায় হোসনে আরা আক্তার লিপি (২৫) নামের এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় জোরারগঞ্জ থানায় “নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ (সংশোধিত/০৩) এর ১১ (ক) ধারায়” একটি মামলা দয়ের করেছে মৃতের বাবা। মামলা নং- ০৫-১১.০৬.১৯ইং।

এই মামলায় তিন জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। অভিযুক্তরা হচ্ছেন, কামাল হোসেন (৩০), হোছনেয়ারা বেগম (৫৫) ও নুর মোহাম্মদ।

গত সোমবার (১০ জুন) রাত সাড়ে ১০ টায় উপজেলার জোরারগঞ্জ থানার হিঙ্গুলী ইউনিয়নের আব্দুল পন্ডিত বাড়িতে এ রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। মৃত গৃহবধূ হোসনে আরা আক্তার লিপি হিঙ্গুলী ইউনিয়নের আব্দুল পন্ডিত বাড়ির কামাল উদ্দিনের স্ত্রী।

মামলার এজাহারে মৃত গৃহবধূর বাবা শেখ আলম উল্লেখ করেন যে, চার বছর পূর্বে উপজেলার হিংগুলি ইউনিয়নের মধ্যম আজম নগর গ্রামের আব্দুল পন্ডিত বাড়ির নুর মোহাম্মদের ছেলে কামাল উদ্দিনের সাথে ইসলামি শরিয়ত মোতাবেক লিপির বিয়ে সম্পন্ন হয়। কিন্তু বিয়ের এক বছর পর থেকেই বিবাদীগন গৃহবধূ লিপিকে বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দেয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করা হতো। গত চার মাস আগে লিপির একটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়।

সন্তান হওয়ার একমাস পর লিপির বাবা শেখ আলম ১নং বিবাদীর চাহিদা মোতাবেক ৭৫ হাজার টাকা দেয়। এরপরও গত একমাস পূর্বে বিবাদীরা তাদের বসতঘর নির্মাণের জন্য আরো দুই লাখ টাকা বাবার বাড়ি থেকে এনে দেয়ার জন্য লিপিকে চাপ প্রয়োগ করে।

সর্বশেষ গত সোমবার (১০জুন) বিকালে লিপি তার মাকে ফোনে শ্বশুর পক্ষ থেকে টাকা চাওয়ার বিষয়টি জানিয়ে কান্নাকাটি করে। কিন্তু রাত ১০.৪৩ মিনিটে ১নং বিবাদী মোবাইল ফোনে জানান যে, লিপি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্য করেছে।

এই ব্যাপারে জোরারগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক আবেদ আলী জানান, লিপিকে হত্যার অভিযোগে তার বাবা বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলার আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ কাজ করছে।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত