শিরোনাম

শ্রীমঙ্গলে সম্পত্তি না পেয়ে বাবাকে পেটালো দুই ছেলে

সোলেমান আহমেদ মানিক, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি:  |  ১৩:৪১, জুন ১২, ২০১৯

প্রত্যেক বাবাই নিজের সব সুখ বিসর্জন দিয়ে সন্তানকে লালনপালন করে থাকেন। অনাহারে-অর্ধাহারে থেকে, কখনো নিজে না খেয়ে সন্তানকে খাওয়ান। আর সেই বাবাকেই সম্পত্তি না পেয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের দুই পাষণ্ড যুবক। মঙ্গলবার (১১জুন) বিকালে উপজেলার হুগলিয়া (গাজীপুর) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ওই পিতার নাম আবদুল ওয়াহিদ (৬৮)।

মারধরকারী দুই ছেলে জুয়েল মিয়া (২২) ও শামীম আহমেদ (২৫)। মারধরে আহত আবদুল ওয়াহিদকে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছেন। এ ব্যাপারে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পিতা আবদুল ওয়াহিদ শ্রীমঙ্গল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

আবদুল ওয়াহিদ জানান, আমার বড় পুত্র জুয়েল মিয়া একজন মাদক সেবনকারী। প্রায় সময় মাদক সেবন করে নেশাগ্রস্থ হয়ে বাড়িতে এসে সম্পত্তি ভাগ করে না দেয়ায় আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। আমি তাকে বাধা দিলে আমাকেও মারধর করে।

বহু আগে থেকে আমার স্ত্রী জামিনা খাতুন সম্পত্তি ভাগাভাগি করার জন্য ছেলেদের পরামর্শ দেয়। একই সঙ্গে আমাকে মারধর করার জন্য উসকিয়ে দেয়।

তিনি বলেন, অন্যদিনের মতো মঙ্গলবার বিকালেও স্ত্রীর পরামর্শে বড় ছেলে জুয়েল মিয়া ও শামীম আহমেদ আমাকে মারধর করে রক্তাক্ত করে।ওরা আমার হাত ভেঙে দিয়েছে।

ইউপি সদস্য তারেক আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আবদুল ওয়াহিদের ছেলে নেশাগ্রস্থ হয়ে সম্পত্তির লোভে প্রায়ই তাকে মারধর করতো। মঙ্গলবার খুব বেশি মারধর করে। খবর পেয়ে আমরা কয়েকজন গিয়ে তাকে উদ্ধার করেছি।

এ বিষেয় শ্রীমঙ্গল থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আবদুছ ছালেক জানান, ওই ঘটনার পর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আবদুল ওয়াহিদ শ্রীমঙ্গল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযুক্ত আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।

এমএআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত