শিরোনাম

বেল্লালের চোখ উপড়ে ফেললো পাষণ্ড মা-বাবা!

রাকিবুল ইসলাম, গলাচিপা (পটুয়াখালী)  |  ০৭:১২, মে ১৭, ২০১৯

গলাচিপায় বাবা মায়ের বিরুদ্ধে ছেলে বেল্লালের (৩৫) চোখ উপড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে গলাচিপা সদর ইউনিয়নের চর কারফারমা গ্রামে গত সোমবার বিকালে।

এ ঘটনার সাথে বাবা জালাল হাওরাদার. মা আয়ফুলজান বিবি ও মামা হারুন হাওলাদারের জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে এলাকাবাসীর।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ভিকটিম ও অভিযুক্ত কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এদিকে মামা হারুন হাং ও মা আয়ফুলজান বিবি বেল্লালের চোখ তারা নিজেরা উঠিয়েছে বলে স্বীকার করেন।

মা জানান, ছেলে খারাপ হলে নিজেদেরই ব্যবস্থা নিতে হয়।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, পক্ষিয়া গ্রামের জালাল হাওলাদারের ছেলে বেল্লালকে গত সোমবার তার মামা হারুন হাওলাদাার চর কারফারমা গ্রামে নিজ বাড়িতে মাংস রুটি পিঠা খাওয়ার দাওয়াত দেয়। বেল্লাল ওই দিনেই মামা বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হয়। এসময় আগে থেকেই ওই বাড়িতে উপস্থিত ছিল বেল্লালের বাবাসহ আরো ৫জন।

পাষণ্ড বাবা-মায়ের সাথে ছেলে বেল্লালের খারাপ আচরণ, অনৈতিক কর্মকান্ড, মাদকাশক্তি ও পারিবারিক কলহের কারণে ক্ষিপ্ত ছিল তারা। এ কারণে মামা বাড়িতেই বেল্লালের দুই চোখই চাকু দিয়ে উপড়ে ফেলে । বর্তমানে বেল্লালের চিকিৎসা বরিশাল শের-ই- বাংলা মেডিকেল হাসপাতালে চলছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

বেল্লালের মা অভিযোগ করে বলেন, স্ত্রী খাদিজাকে মেরে ফেলে এমন কি ওর ভয়ে তারা কয়েক মাস পালিয়ে বেড়াত। মারা যাওয়ার সময়ে সানজিদা (৭), রেজাউলের (৫) আশ্রয় মিলে নানা বাড়ি আমখোলায়। এ ঘটনার পর থেকে বেল্লাল আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে। এলাকায় নানা অনৈতিক কর্মকান্ড শুরু করে। এতে বাবা-মায়ের সামাজিক ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়।

এ ব্যাপারে গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার মোর্শেদ জানান, বিষয়টি আমরা লোকমুখে শুনেছি। তবে এ ব্যাপারে কেউ কোন অভিযোগ করেনি।

তিনি আরও জানান, বেল্লালের বিরুদ্ধে পটুয়াখালী পুলিশ সুপার বরাবর তার মা আয়ফুলজান বিবি নানা অভিযোগ করেছেন যা গলাচিপা থানা পুলিশে তদন্তাধীন রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত