শিরোনাম

‘ধারাবাহিকে চরিত্রে ডুবে যাওয়ার সুযোগ কম’

প্রিন্ট সংস্করণ  |  ০১:৩১, অক্টোবর ১৯, ২০১৮

নতুন ধারার গল্পের কয়েকটি ছবিতে কাজ করে আলোচিত হয়েছিলেন শারমীন জোহা শশী। তবে টিভি নাটকেই তার উপস্থিতি বেশি। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন-রকিব হোসেন

এক ঘণ্টার নাটকের পাশাপাশি আপনি এখন ধারাবাহিকেও নিয়মিত কাজ করছেন। কোন ধারার কাজ বেশি উপভোগ করেন?
আসলে এক ঘণ্টার নাটকে কাজ করার মজাই আলাদা। এই ধারার কাজের আগে পুরো গল্পটি জানা যায়। ফলে এটি সহজেই মনে গেঁথে যায়। দুই বা তিনদিনের মধ্যে শুটিং শেষ করা যায় বলে চরিত্রটিতে পুরোপুরি ডুবে যাওয়া যায় সহজে। চরিত্রের আবেদন যথাযথভাবে ধরে রাখা যায় বলে কাজটি করে আনন্দ পাই বেশি। কিন্তু ধারাবাহিকে চরিত্রে ডুবে যাওয়ার সুযোগ কম।

মাঝে সালাহ উদ্দিন লাভলুর পরিচালনায় কাজ করেছেন। তার সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা সবারই নাকি ভালো। আপনার কেমন লেগেছে?
তিনি অনেক গুণী একজন নির্মাতা। এর আগেও আমি এই পরিচালকের সঙ্গে কাজ করেছি। অভিজ্ঞতা চমৎকার। তার পরিচালনায় কাজ করতে গেলে প্রতিবারই কিছু না কিছু শিখি। লাভলু ভাইয়ের নির্দেশনায় কাজ করতে বরাবরই আমার ভীষণ ভালো লাগে।

ধারাবাহিক নাটকে কাজের কী খবর?
এখন আগে শিডিউল দেওয়া কয়েকটি ধারাবাহিকের কাজ করছি। নাটকের গল্পগুলো চমৎকার। আমার চরিত্রে অভিনয় করারও সুযোগ পেয়েছি।
ভিন্ন গল্পের কয়েকটি ছবিতে আপনাকে দেখা গেছে। এর বাইরে ‘কান’ চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয়েছে আপনার অভিনীত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘দাগ’। এটা

নিয়ে আপনার অনুভূতি কেমন?
কান বিশ্ব চলচ্চিত্রের অন্যতম একটি উৎসব। এই আসরে আমার অভিনীত ছবিটি প্রদর্শিত হয়ে প্রশংসা পেয়েছে। এজন্য আমি খুবই আনন্দিত। এরপর আমেরিকা ও ইউরোপের দর্শকরাও ছবিটি দেখছেন।

পরিচালক হওয়ার একটি স্বপ্ন আপনার রয়েছে। এই স্বপ্ন আপনাকে কীভাবে তাড়া করে?
আমি জীবনে অন্তত একটি হলেও ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে চাই। পরিচালক হতে চাই। পরিচালক হওয়ার স্বপ্ন দেখি। এজন্য লাইট, ক্যামেরাসহ পরিচালনা সংশ্লিষ্ট অনেক কিছু শিখে নেবো।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত