পর্দা নামলো ৭২তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের

সেরা ছবি কোরিয়ার ‘প্যারাসাইট’

প্রিন্ট সংস্করণ॥বিনোদন ডেস্ক  |  ০৩:১৫, মে ২৭, ২০১৯

বড় ধরনের একটা অঘটন ঘটে গেল এবারের কান চলচ্চিত্র উৎসবে। হলিউডের নামজাদা পরিচালকদের হটিয়ে এবারের উৎসবে পাম ডি অর বা স্বর্ণপাম জিতে নিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার ‘প্যারাসাইট’ ছবিটি।

এরই মাধ্যমে প্রথমবার স্বর্ণপামের স্বাদ পেলো দক্ষিণ কোরিয়া। গত শনিবার সমাপনী মঞ্চে ছবির নির্মাতা বঙ জুন-হোর হাতে তুলে দেয়া হয় স্বর্ণপাম। এ সময় এক হাত ওপরে তুলে বিজয় উদযাপন করেন বঙ জুন-হো।

পুরস্কার গ্রহণ করে মঞ্চে দাঁড়িয়ে বঙ জুন-হো বলেন, ‘আমার বক্তব্য ফরাসি ভাষায় তৈরি করিনি, এজন্য দুঃখিত। সত্যি বলতে স্বর্ণপাম জেতার প্রত্যাশা ছিল না আমার। আমি সত্যিই সম্মানিত বোধ করছি। এই পুরস্কার জিতে আমি অভিভূত। এটা অনেক বড় ব্যাপার।’

গত শনিবার দিবাগত রাত বাংলাদেশ সময় সোয়া ১১টা থেকে শুরু হয় কানের ৭২তম আসরের সমাপনী অনুষ্ঠান। প্রতিযোগিতা বিভাগের প্রধান জুরি নির্মাতা আলেজান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতুসহ মোট ৯ জন বিচারকের উপস্থিতিতে স্বর্ণপাম ও অন্যান্য বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন। জমকালো এ উৎসরে এবারের আসরে বিজয়ীরা হলেন—

পাম ডি ওর : প্যারাসাইট (বঙ জুন-হো), গ্র্যান্ড প্রিক্স : আটলান্টিকস (মাতি দিওপ), জুরি প্রাইজ : লা মিজারেবল (লাজ লি) ও বাকুরাউ (ক্লেবার মেনদোনসা ষ এরপর পৃষ্ঠা ২ কলাম ১
সেরা ছবি কোরিয়ার ‘প্যারাসাইট’ ফিলো ও জুলিয়ানো দোরনেলেস), সেরা অভিনেত্রী : এমিলি মেচাম (লিটিল জো), সেরা অভিনেতা : অ্যান্তোনিও বান্দেরাস (পেইন অ্যান্ড গ্লোরি), সেরা নির্মাতা : জ্যঁ-পিয়ের এবং লুক দারদেন (দ্য ইয়ং আহমেদ), সেরা চিত্রনাট্যকার : সেলিন সিয়ামা (পোর্ট্রেট অব অ্য লেডি অন ফায়ার), জুরি স্পেশাল মেনশন : ইট মাস্ট বি হ্যাভেন (ইলিয়া সুলেমান), ক্যামেরা ডি ওর : আওয়ার মাদার্স (সিজার দিয়াজ), সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি : দ্য ডিস্ট্যান্স বিটউইন আস অ্যান্ড দ্য স্কাই (ভাসিলিস কেকাতোস), জুরি স্পেশাল মেনশন(স্বল্পদৈর্ঘ্য) : মনসুত্রও দিওস (অগাস্তিনা স্যান), কুইর পাম (ফিচার) : পোট্রেট অব অ্যা লেডি অন ফায়ার (সেলিন সিয়ামা), কুইর পাম (স্বল্পদৈর্ঘ্য) : দ্য ডিস্ট্যান্স বিটউইন আস অ্যান্ড দ্য স্কাই (ভাসিলিস কেকাতোস)।

ফ্রান্সের সমুদ্রতীরের শহর কানের গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে ১৪ মে স্থানীয় সময় রাত ৮টা ১০ মিনিটে কান উৎসবের পর্দা উঠেছিল। এবারের আসরের উদ্বোধন করেন অস্কারজয়ী স্প্যানিশ অভিনেতা হ্যাভিয়ার বারদেম ও ফরাসি অভিনেত্রী ও গায়িকা গেইন্সবুর্গ।

এবারের আসরে রেড কার্পেট আলোকিত করেন বিভিন্ন দেশের নামিদামি সব তারকা। প্রথমদিন কানের রেড কার্পেটে ধরা দিয়েছিলেন সেলেনা গোমেজ, জুলিয়ান মুরসহ প্রখ্যাত তারকারা। রেড কার্পেটে ছিলেন জুরিরাও।

কানের এবারের আসরে মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে লড়াই করেছিল বিভিন্ন দেশের ২২টি চলচ্চিত্র। এর মধ্যে ‘আন সার্টেইন রিগার্ড’-এ ১৮টি, আউট অব কম্পিটিশন-এ ৫টি, মিডনাইট স্ক্রিনিং-এ দুটি এবং স্পেশাল স্ক্রিনিংস-এ ১০টি। উৎসবে এবার আর ‘ক্লোজিং ফিল্ম’ বলা হচ্ছে না।

যে ছবির মাধ্যমে উৎসব শেষ হবে, সেই আয়োজন বা সেই ছবিকে এবার বলা হয়েছে ‘লাস্ট স্ক্রিনিং’। লাস্ট স্ক্রিনিংয়ে এ বছর প্রদর্শিত হয়েছে ‘দ্য স্পেশালস’ ছবিটি। যৌথভাবে এটি পরিচালনা করেছেন অলিভিয়ে নাকাশ ও এরিক তোলেরান।

এবারের মূল প্রতিযোগিতায় অন্যতম আকর্ষণ ছিল ‘ওয়ান্স আপন অ্য টাইম ইন হলিউড’। এ ছবিতে অভিনয় করেছেন ব্র্যাড পিট এবং লিয়োনার্দো ডি ক্যাপ্রিও। ছবিটি পরিচালনা করেছেন অস্কার, গোল্ডেন গ্লোবজয়ী পরিচালক কুয়েন্টিন তারান্তিনো।

কানের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট সূত্রে জানা গেছে, এবারের অফিসিয়াল পোস্টার উৎসর্গ করা হয়েছে ফ্রান্সের নারী চলচ্চিত্রকার অ্যানিস ভার্দাকে। ৯০ বছর বয়সি এ নির্মাতা চলতি বছর ২৯ মার্চ মারা যান।