শিরোনাম

মৃত্যু উপত্যকা

জুনাইদ শামস  |  ১৫:০৬, জুন ২৮, ২০১৯

হয়ত, আজই নৃশংস মৃত্যু আসবে আমার দুয়ারে। হয়ত, আজ যখন শহরের ব্যস্ত সড়ক ধরে হেটে যাব, একটা প্রাইভেটকার ঝড়ের বেগে ছুটে আসবে। তার পেছনে ছুটে আসবে একটা কার্গো। তার পিছনে আরো অনেক... ।

সবাই আমাকে একবার করে পিষে যাবে। আমার নিথর দেহ ছিন্ন হয়ে থুবড়ে পড়বে পরিচিত শহরে। "একটি শোক সংবাদ" ঘোষণা হবে। টিভির পর্দায় ভাসতে থাকবে নৃশংস মৃত্যুসংবাদ। বিরক্তিতে ছেয়ে যাবে ক্রিকেটপ্রেমিদের মুখও।

তদন্ত টিম আমার দেহকে অকেজো ঘোষণা করবে। লালচোখা ডোম বুটের তলায় নেড়েচেড়ে হতাশ হবে। উর্ধ্বমহল নির্লিপ্ত কিন্তু হতাশ কণ্ঠে ঘোষণা করবে, ‘মৃত্যু বড়োই বেদনাদায়ক’।

মিথ্যে মামলার দায় এড়াতে কেউ কাছে আসবে না। বুকের একচ্ছত্র অধিকারী মানুশটাও নিঃশব্দে আড়াল হবে। কাছে আসবে শুধু কিছু পরিচ্ছন্নতাকর্মী ; জীবিকার তাগিদে। উটকো গন্ধে তাদের চোখেমুখে ছেয়ে যাবে অসহ্য ঘৃণা।

পৃথিবীর একটা প্রাণীর নৃশংস মৃত্যু হবে। পৃথিবীর কাছে, পৃথিবীর মানুষের কাছে সে হয়ত শুধুই একটা প্রাণী, কিন্তু তার কাছে সে নিজে ছিলো একটা পৃথিবী।

সবশেষে হঠাৎ, একটি কৌতুহলি প্রজন্ম তীব্র ভীড় জমাবে; হুড়হুড় করে গড়িয়ে পড়বে চারপাশে। আকাশ সমান কৌতুহল নিয়ে জেঁকে বসবে এরা। মৃত্যুর কৌতুহল নয়; সেলফিতে জায়গা করার মতো নতুন কিছু খুঁজে পাওয়ার কৌতুহল।

আমার মরদেহে একসঙ্গে জ্বলে উঠবে সহস্র ফ্লাশলাইট। একটা নৃশংস মৃত্যুতে ফেসবুক ভরে উঠবে। গোপন আনন্দে মেতে উঠবে নিউজফিড।

কেউ হয়তো কষ্টের ইমোজি ছড়াবে। সেই ইমোজির ভেতর হয়তো লুকিয়ে থাকবে নতুন ইস্যু খুঁজে পাওয়ার এক ভয়ঙ্কর পৈশাচিক উল্লাস!

তারপর, একদিন আমি হারিয়ে যাব। আমার স্থলাভিষিক্ত হবে অন্য একজন। তারপর আরও একজন। তারপর আরও...

মৃত্যু উপত্যকায় মৃত্যু হয়ে উঠবে জীবনের এক সহজ সাবলীল অনুষঙ্গ।

এসএস

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত