শিরোনাম

প্রচণ্ড তাপদাহ: আমের মুকুলসহ রোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা

প্রিন্ট সংস্করণ॥ এএইচ জুয়েল, তালা (সাতক্ষীরা)  |  ০২:৩২, এপ্রিল ০৭, ২০১৮

চৈত্র মাস প্রায় শেষ। চৈত্রের শেষভাগে এসেও এখনও বৃষ্টির দেখা না মেলায় তীব্র তাপদাহ আর অনাবৃষ্টিতে পুড়ছে তালা উপজেলার বোরো ধানের ক্ষেত। আমের মুকুলসহ গ্রীষ্মকালীন শাক-সবজির বাগান। উপজেলার কৃষকদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যে জানাযায়, চলতি বোরো মৌসুমে অনাবৃষ্টির কারণে মাঠে পুড়ছে বোরো ধান। ফেটে চৌচির হয়ে যাচ্ছে মাঠ। খরার ফলে অধিক হারে বেড়েছে লবণাক্ততা। একই জমিতে একপাশে ধানের অবস্থা ভালো দেখা গেলেও অন্যপাশে লবণ ওঠার কারণে ধান গাছ শুকিয়ে যাচ্ছে। মিষ্টি পানির আধার না থাকায় কৃষকরা ঝুঁকেছে স্যালো ম্যাশিন ও বিদ্যুৎ চালিত সেচ যন্ত্রের দিকে। তাতেও ভালো ফল পাচ্ছেন না কৃষকরা। ফলে বোরো ধানে অন্যবারের চেয়ে এবার অধিক হারে খরচ বেড়েছে কৃষকের। অন্যদিকে বর্ষা হয়নি বলে আমের মুকুল, কাঁঠালের ফুলসহ গ্রীষ্মকালীন ফলের ফুল শুকিয়ে পড়ে যাচ্ছে। অন্যান্য বছরগুলোতে এসময় বৃষ্টির দেখা মিললেও এ বছর এখনও মেলেনি। ফসলের পাশাপাশি গবাদি পশুও বিভিন্ন ধরণের রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শামসুল আলম বলেন, বৃষ্টি না হওয়ায় অবশ্যই মাঠে কৃষকের কিছুটা ক্ষতি হচ্ছে। আমাদের চালের বড় জোগান আসে বোরো মৌসুমে। কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে এবার উপজেলার প্রায় ১৯ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ করছে উপজেলা কৃষি বিভাগ।
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত